islamkingdomfaceBook islamkingdomtwitter islamkingdomyoutube


নিঃসন্দেহ এটি তো এক সম্মানিত কুরআন,

এক সুরক্ষিত গ্রন্থে।

কেউ তা স্পর্শ করবে না পূত-পবিত্র ছাড়া।

এটি এক অবতারণ বিশ্বজগতের প্রভুর কাছ থেকে।

তা সত্ত্বেও কি সেই বাণীর প্রতি তোমরা তুচ্ছতাচ্ছিল্য ভাবাপন্ন,

এবং তোমাদের জীবিকা বানিয়ে নিয়েছ যে তোমরা মিথ্যা আখ্যা দেবে?

তবে কেন যখন কন্ঠাগত হয়ে যায়,

এবং তোমরা যে-সময়ে তাকিয়ে থাকো,

আমরা তখন তোমাদের চাইতে তার বেশী নিকটবর্তী কিন্তু তোমরা দেখতে পাও না।

যদি তোমরা আজ্ঞাধীন না হয়ে থাক তবে কেন তোমরা পার না --

তাকে ফিরিয়ে দিতে, যদি তোমরা সত্যবাদী হও?

আর পক্ষান্তরে যদি সে নৈকট্যপ্রাপ্তদের অন্তর্ভুক্ত হয়।

তাহলে আয়েশ-আরাম ও সৌরভ, এবং আনন্দময় উদ্যান।

আর অপরপক্ষে সে যদি দক্ষিণপন্থীদের মধ্যেকার হয়,

তাহলে দক্ষিণপন্থীদের দলের থেকে -- ''তোমার প্রতি সালাম।’’

আর পক্ষান্তরে সে যদি প্রত্যাখ্যানকারী পথভ্রষ্টদের অন্তর্ভুক্ত হয়ে থাকে, --

তাহলে আপ্যায়ন হবে ফুটন্ত পানি দিয়ে,

এবং প্রবেশস্থল হবে ভয়ংকর আগুন!

নিঃসন্দেহ এটি অবশ্য সুনিশ্চিত সত্য।

সুতরাং তোমার সর্বশক্তিমান প্রভুর নামের জপতপ করো।

মহাকাশমন্ডলে ও পৃথিবীতে যা-কিছু আছে তা আল্লাহ্‌র জপতপ করে, আর তিনি মহাশক্তিশালী, পরমজ্ঞানী।

তাঁরই হচ্ছে মহাকাশমন্ডল ও পৃথিবীর সার্বভৌমত্ব তিনি জীবন দান করেন ও মৃত্যু ঘটান, আর তিনিই সব-কিছুর উপরে সর্বশক্তিমান।

তিনিই আদি ও অন্ত আর প্রকাশ্য ও গুপ্ত, কেননা তিনিই সব-কিছু সন্বন্ধে সর্বজ্ঞাতা।