50-सूरा-क़ाफ़ « 51-सूरा-अज़्-ज़ारियात » 52-सूरा-अत्-तूर
taisirul . mohamed-seddik-el-menchaoui
Nozol : مكية  ,   Other names :
  1. Part
    26
  1. Hizb
    52
  1. Nozol order
    65
  1. Characters count
    1546
  1. Words count
    360
  1. Ayaat count
    60
  1. Pages count
    3
  1. From page
    520
  1. To page
    522

وَالذَّارِيَاتِ ذَرْوًا

শপথ সেই বাতাসের যা ধূলাবালি উড়ায়,

Words count : 2 Characters count : 13 والذاريات ذروا

فَالْحَامِلَاتِ وِقْرًا

আর যা উঠিয়ে নেয় আর বহন করে ভারী বোঝা,

Words count : 2 Characters count : 13 فالحاملات وقرا

فَالْجَارِيَاتِ يُسْرًا

আর যা ধীর ও শান্ত গতিতে বয়ে চলে

Words count : 2 Characters count : 13 فالجاريات يسرا

فَالْمُقَسِّمَاتِ أَمْرًا

আর যারা কর্ম বণ্টন করে,

Words count : 2 Characters count : 13 فالمقسمات أمرا

إِنَّمَا تُوعَدُونَ لَصَادِقٌ

তোমাদেরকে যার ও‘য়াদা দেয়া হয়েছে তা অবশ্যই সত্য।

Words count : 3 Characters count : 15 إنما توعدون لصادق

وَإِنَّ الدِّينَ لَوَاقِعٌ

কর্মফল দিবস অবশ্যই আসবে।

Words count : 3 Characters count : 13 وإن الدين لواقع

وَالسَّمَاءِ ذَاتِ الْحُبُكِ

বহু পথ বিশিষ্ট আকাশের শপথ।

Words count : 3 Characters count : 15 والسماء ذات الحبك

إِنَّكُمْ لَفِي قَوْلٍ مُّخْتَلِفٍ

(পরকাল সম্পর্কে) তোমরা অবশ্যই রয়েছ মতভেদের মধ্যে।

Words count : 4 Characters count : 15 إنكم لفي قول مختلف

يُؤْفَكُ عَنْهُ مَنْ أُفِكَ

যারা সেই (সত্য) মানতে ভুল করে তারাই গুমরাহ।

Words count : 4 Characters count : 12 يؤفك عنه من أفك

قُتِلَ الْخَرَّاصُونَ

অনুমানকারীরা ধ্বংস হোক,

Words count : 2 Characters count : 11 قتل الخراصون

الَّذِينَ هُمْ فِي غَمْرَةٍ سَاهُونَ

যারা অজ্ঞতা ও উদাসীনতার মধ্যে রয়েছে।

Words count : 5 Characters count : 18 الذين هم في غمرة ساهون

يَسْأَلُونَ أَيَّانَ يَوْمُ الدِّينِ

তারা জিজ্ঞেস করে- ‘প্রতিফল দিবস কবে হবে?’

Words count : 4 Characters count : 18 يسألون أيان يوم الدين

يَوْمَ هُمْ عَلَى النَّارِ يُفْتَنُونَ

(তা হবে সেদিন) যেদিন তাদেরকে আগুনে শাস্তি দেয়া হবে।

Words count : 5 Characters count : 19 يوم هم على النار يفتنون

ذُوقُوا فِتْنَتَكُمْ هَٰذَا الَّذِي كُنتُم بِهِ تَسْتَعْجِلُونَ

(তাদেরকে বলা হবে) তোমরা তোমাদের (কৃতকর্মের) শাস্তি ভোগ কর, এটা হচ্ছে তাই যার জন্য তোমরা তাড়াহুড়া করছিলে।

Words count : 7 Characters count : 32 ذوقوا فتنتكم هذا الذي كنتم به تستعجلون

إِنَّ الْمُتَّقِينَ فِي جَنَّاتٍ وَعُيُونٍ

মুত্তাকীরা থাকবে জান্নাত আর ঝর্ণাধারার মাঝে।

Words count : 5 Characters count : 20 إن المتقين في جنات وعيون

آخِذِينَ مَا آتَاهُمْ رَبُّهُمْ ۚ إِنَّهُمْ كَانُوا قَبْلَ ذَٰلِكَ مُحْسِنِينَ

তাদের প্রতিপালক যা তাদেরকে দিবেন তা তারা ভোগ করবে, কারণ তারা পূর্বে (দুনিয়ার জীবনে) ছিল সৎকর্মশীল,

Words count : 9 Characters count : 37 آخذين ما آتاهم ربهم إنهم كانوا قبل ذلك محسنين

كَانُوا قَلِيلًا مِّنَ اللَّيْلِ مَا يَهْجَعُونَ

তারা রাত্রিকালে খুব কমই শয়ন করত।

Words count : 6 Characters count : 25 كانوا قليلا من الليل ما يهجعون

وَبِالْأَسْحَارِ هُمْ يَسْتَغْفِرُونَ

আর তারা রাত্রির শেষ প্রহরে ক্ষমা প্রার্থনা করত।

Words count : 3 Characters count : 19 وبالأسحار هم يستغفرون

وَفِي أَمْوَالِهِمْ حَقٌّ لِّلسَّائِلِ وَالْمَحْرُومِ

এবং তাদের ধন-মালে আছে যাঞ্ঝাকারী ও বঞ্চিতদের অধিকার (যা তারা আদায় করত)।

Words count : 5 Characters count : 26 وفي أموالهم حق للسائل والمحروم

وَفِي الْأَرْضِ آيَاتٌ لِّلْمُوقِنِينَ

নিশ্চিত বিশ্বাসীদের জন্য পৃথিবীতে আছে নিদর্শন,

Words count : 4 Characters count : 20 وفي الأرض آيات للموقنين

وَفِي أَنفُسِكُمْ ۚ أَفَلَا تُبْصِرُونَ

আর (নিদর্শন আছে) তোমাদের মাঝেও, তোমরা কি দেখ না?

Words count : 4 Characters count : 19 وفي أنفسكم أفلا تبصرون

وَفِي السَّمَاءِ رِزْقُكُمْ وَمَا تُوعَدُونَ

এবং আকাশে আছে তোমাদের রিযক আর আছে যার ও‘য়াদা তোমাদেরকে দেয়া হয়েছে।

Words count : 5 Characters count : 23 وفي السماء رزقكم وما توعدون

فَوَرَبِّ السَّمَاءِ وَالْأَرْضِ إِنَّهُ لَحَقٌّ مِّثْلَ مَا أَنَّكُمْ تَنطِقُونَ

আকাশ ও যমীনের প্রতিপালকের শপথ! এ সব অবশ্যই সত্য, এমনই দৃঢ় সত্য যেমন তোমরা (যে কথাবার্তা) বলে থাক (সেই কথাবার্তা বলার ব্যাপারটা যেমন নিঃসন্দেহে সত্য)।

Words count : 9 Characters count : 37 فورب السماء والأرض إنه لحق مثل ما أنكم تنطقون

هَلْ أَتَاكَ حَدِيثُ ضَيْفِ إِبْرَاهِيمَ الْمُكْرَمِينَ

তোমার কাছে ইবরাহীমের সম্মানিত মেহমানদের খবর পৌঁছেছে কি?

Words count : 6 Characters count : 28 هل أتاك حديث ضيف إبراهيم المكرمين

إِذْ دَخَلُوا عَلَيْهِ فَقَالُوا سَلَامًا ۖ قَالَ سَلَامٌ قَوْمٌ مُّنكَرُونَ

যখন তারা তার সামনে উপস্থিত হল তখন বলল, ‘সালাম’। সে উত্তর দিল- ‘সালাম’। (ইবরাহীম মনে মনে ভাবল এদেরকে তো দেখছি) অপরিচিত লোক।

Words count : 9 Characters count : 38 إذ دخلوا عليه فقالوا سلاما قال سلام قوم منكرون

فَرَاغَ إِلَىٰ أَهْلِهِ فَجَاءَ بِعِجْلٍ سَمِينٍ

তখন সে তাড়াতাড়ি তার ঘরের লোকেদের নিকট চলে গেল এবং একটি মোটাতাজা (ভাজা) বাছুর নিয়ে আসল।

Words count : 6 Characters count : 23 فراغ إلى أهله فجاء بعجل سمين

فَقَرَّبَهُ إِلَيْهِمْ قَالَ أَلَا تَأْكُلُونَ

অতঃপর সেটিকে তাদের সামনে রেখে দিল এবং বলল- ‘তোমরা খাচ্ছ না কেন?’

Words count : 5 Characters count : 22 فقربه إليهم قال ألا تأكلون

فَأَوْجَسَ مِنْهُمْ خِيفَةً ۖ قَالُوا لَا تَخَفْ ۖ وَبَشَّرُوهُ بِغُلَامٍ عَلِيمٍ

(যখন তারা খেল না) তখন সে তাদের ব্যাপারে মনে ভয় পেয়ে গেল। তারা বলল- ‘তুমি ভয় পেও না’, অতঃপর তারা তাকে এক জ্ঞানবান পুত্রের সুসংবাদ দিল।

Words count : 9 Characters count : 38 فأوجس منهم خيفة قالوا لا تخف وبشروه بغلام عليم

فَأَقْبَلَتِ امْرَأَتُهُ فِي صَرَّةٍ فَصَكَّتْ وَجْهَهَا وَقَالَتْ عَجُوزٌ عَقِيمٌ

তখন তার স্ত্রী চিৎকার করতে করতে এগিয়ে আসল। সে নিজের কপালে আঘাত করে বলল ‘(আমি) এক বৃদ্ধা, বন্ধ্যা’ (আমার কীভাবে সন্তান হবে?)

Words count : 9 Characters count : 39 فأقبلت امرأته في صرة فصكت وجهها وقالت عجوز عقيم

قَالُوا كَذَٰلِكِ قَالَ رَبُّكِ ۖ إِنَّهُ هُوَ الْحَكِيمُ الْعَلِيمُ

তারা বলল- ‘‘তোমার প্রতিপালক এ রকমই বলেছেন, তিনি মহা প্রজ্ঞাময়, সর্বজ্ঞ।

Words count : 8 Characters count : 32 قالوا كذلك قال ربك إنه هو الحكيم العليم

۞ قَالَ فَمَا خَطْبُكُمْ أَيُّهَا الْمُرْسَلُونَ

ইবরাহীম বলল- ‘ওহে আল্লাহর দূতগণ (ফেরেশতারা)! তোমাদের কাজ কী (এখন)?’

Words count : 5 Characters count : 23 قال فما خطبكم أيها المرسلون

قَالُوا إِنَّا أُرْسِلْنَا إِلَىٰ قَوْمٍ مُّجْرِمِينَ

তারা বলল- ‘আমাদেরকে এক অপরাধী জাতির কাছে পাঠানো হয়েছে।

Words count : 6 Characters count : 26 قالوا إنا أرسلنا إلى قوم مجرمين

لِنُرْسِلَ عَلَيْهِمْ حِجَارَةً مِّن طِينٍ

যেন তাদের উপর মাটির পাথর বর্ষণ করি

Words count : 5 Characters count : 20 لنرسل عليهم حجارة من طين

مُّسَوَّمَةً عِندَ رَبِّكَ لِلْمُسْرِفِينَ

যা তোমার প্রতিপালকের নিকট চিহ্নিত হয়ে আছে সীমালঙ্ঘনকারীদের জন্য।

Words count : 4 Characters count : 19 مسومة عند ربك للمسرفين

فَأَخْرَجْنَا مَن كَانَ فِيهَا مِنَ الْمُؤْمِنِينَ

সেখানে যারা মু’মিন ছিল আমি তাদেরকে বের করে এনেছিলাম,

Words count : 6 Characters count : 26 فأخرجنا من كان فيها من المؤمنين

فَمَا وَجَدْنَا فِيهَا غَيْرَ بَيْتٍ مِّنَ الْمُسْلِمِينَ

আমি সেখানে মুসলিমদের একটি পরিবার ছাড়া আর পাইনি।

Words count : 7 Characters count : 28 فما وجدنا فيها غير بيت من المسلمين

وَتَرَكْنَا فِيهَا آيَةً لِّلَّذِينَ يَخَافُونَ الْعَذَابَ الْأَلِيمَ

আর তাদের জন্য সেখানে একটা নিদর্শন রেখে দিলাম যারা অত্যন্ত পীড়াদায়ক ‘আযাবের ভয় করে।

Words count : 7 Characters count : 36 وتركنا فيها آية للذين يخافون العذاب الأليم

وَفِي مُوسَىٰ إِذْ أَرْسَلْنَاهُ إِلَىٰ فِرْعَوْنَ بِسُلْطَانٍ مُّبِينٍ

আর মূসার ঘটনাতেও (নিদর্শন আছে) যখন আমি তাকে স্পষ্ট প্রমাণসহ ফেরাউনের কাছে পাঠিয়েছিলাম,

Words count : 8 Characters count : 34 وفي موسى إذ أرسلناه إلى فرعون بسلطان مبين

فَتَوَلَّىٰ بِرُكْنِهِ وَقَالَ سَاحِرٌ أَوْ مَجْنُونٌ

তখন সে তার ক্ষমতার দাপটে মুখ ফিরিয়ে নিল আর বলল- ‘এ লোক একটা যাদুকর না হয় পাগল।’

Words count : 6 Characters count : 25 فتولى بركنه وقال ساحر أو مجنون

فَأَخَذْنَاهُ وَجُنُودَهُ فَنَبَذْنَاهُمْ فِي الْيَمِّ وَهُوَ مُلِيمٌ

শেষে আমি তাকে আর তার সৈন্য সামন্তকে পাকড়াও করলাম আর তাদেরকে সমুদ্রে নিক্ষেপ করলাম। সে ছিল ধিকৃত নিন্দিত।

Words count : 7 Characters count : 34 فأخذناه وجنوده فنبذناهم في اليم وهو مليم

وَفِي عَادٍ إِذْ أَرْسَلْنَا عَلَيْهِمُ الرِّيحَ الْعَقِيمَ

আর ‘আদ-এর ঘটনাতেও (নিদর্শন আছে)। আমি তাদের কাছে পাঠিয়েছিলাম অকল্যাণের বাতাস।

Words count : 7 Characters count : 30 وفي عاد إذ أرسلنا عليهم الريح العقيم

مَا تَذَرُ مِن شَيْءٍ أَتَتْ عَلَيْهِ إِلَّا جَعَلَتْهُ كَالرَّمِيمِ

তা যা কিছুর উপর দিয়ে বয়ে গিয়েছিল তাকে চূর্ণ-বিচূর্ণ ও ধ্বংসস্তুপে পরিণত না করে ছাড়েনি।

Words count : 9 Characters count : 32 ما تذر من شيء أتت عليه إلا جعلته كالرميم

وَفِي ثَمُودَ إِذْ قِيلَ لَهُمْ تَمَتَّعُوا حَتَّىٰ حِينٍ

আর সামূদের ঘটনাতেও (নিদর্শন আছে) যখন তাদেরকে বলা হয়েছিল, ‘একটা নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত ভোগ করে লও।’

Words count : 8 Characters count : 27 وفي ثمود إذ قيل لهم تمتعوا حتى حين

فَعَتَوْا عَنْ أَمْرِ رَبِّهِمْ فَأَخَذَتْهُمُ الصَّاعِقَةُ وَهُمْ يَنظُرُونَ

কিন্তু তারা ধৃষ্টতার সঙ্গে তাদের প্রতিপালকের আদেশ অমান্য করল। ফলে বজ্রাঘাত তাদেরকে পাকড়াও করল যা তারা চেয়ে চেয়ে দেখছিল।

Words count : 8 Characters count : 37 فعتوا عن أمر ربهم فأخذتهم الصاعقة وهم ينظرون

فَمَا اسْتَطَاعُوا مِن قِيَامٍ وَمَا كَانُوا مُنتَصِرِينَ

তারা (পায়ের ভরে) উঠে দাঁড়াতেও পারল না আর আত্মরক্ষা করতেও পারল না।

Words count : 7 Characters count : 32 فما استطاعوا من قيام وما كانوا منتصرين

وَقَوْمَ نُوحٍ مِّن قَبْلُ ۖ إِنَّهُمْ كَانُوا قَوْمًا فَاسِقِينَ

ইতোপূর্বে আমি নূহের জাতিকে ধ্বংস করেছিলাম, তারা ছিল এক পাপাচারী জাতি।

Words count : 8 Characters count : 31 وقوم نوح من قبل إنهم كانوا قوما فاسقين

وَالسَّمَاءَ بَنَيْنَاهَا بِأَيْدٍ وَإِنَّا لَمُوسِعُونَ

আমি নিজ হাত দ্বারা আসমান সৃষ্টি করেছি আর আমি অবশ্যই মহা প্রশস্তকারী।

Words count : 5 Characters count : 29 والسماء بنيناها بأيد وإنا لموسعون

وَالْأَرْضَ فَرَشْنَاهَا فَنِعْمَ الْمَاهِدُونَ

আর যমীন- তাকে আমিই বিছিয়েছি, আমি কতই না সুন্দর (সমতল) প্রসারণকারী!

Words count : 4 Characters count : 25 والأرض فرشناها فنعم الماهدون

وَمِن كُلِّ شَيْءٍ خَلَقْنَا زَوْجَيْنِ لَعَلَّكُمْ تَذَكَّرُونَ

আমি প্রত্যেকটি বস্তু সৃষ্টি করেছি জোড়ায় জোড়ায়, যাতে তোমরা শিক্ষা গ্রহণ কর।

Words count : 7 Characters count : 29 ومن كل شيء خلقنا زوجين لعلكم تذكرون

فَفِرُّوا إِلَى اللَّهِ ۖ إِنِّي لَكُم مِّنْهُ نَذِيرٌ مُّبِينٌ

অতএব দৌড়াও আল্লাহর দিকে, আমি তোমাদের জন্য তাঁর পক্ষ হতে স্পষ্ট সতর্ককারী।

Words count : 8 Characters count : 29 ففروا إلى الله إني لكم منه نذير مبين

وَلَا تَجْعَلُوا مَعَ اللَّهِ إِلَٰهًا آخَرَ ۖ إِنِّي لَكُم مِّنْهُ نَذِيرٌ مُّبِينٌ

তোমরা আল্লাহর সঙ্গে কোন ইলাহ স্থির করো না, আমি তাঁর পক্ষ থেকে তোমাদের জন্য স্পষ্ট সতর্ককারী।

Words count : 11 Characters count : 39 ولا تجعلوا مع الله إلها آخر إني لكم منه نذير مبين

كَذَٰلِكَ مَا أَتَى الَّذِينَ مِن قَبْلِهِم مِّن رَّسُولٍ إِلَّا قَالُوا سَاحِرٌ أَوْ مَجْنُونٌ

এভাবে যখনই তাদের আগের লোকেদের মধ্যে কোন রসূল এসেছে, তখনই তারা বলেছে- ‘সে যাদুকর না হয় উন্মাদ।’

Words count : 13 Characters count : 46 كذلك ما أتى الذين من قبلهم من رسول إلا قالوا ساحر أو مجنون

أَتَوَاصَوْا بِهِ ۚ بَلْ هُمْ قَوْمٌ طَاغُونَ

তারা কি বংশ পরম্পরায় এরই অসিয়ত (অর্থাৎ অন্তিম সবক) দিয়ে আসছে, বরং তারা সীমালঙ্ঘনকারী জাতি।

Words count : 6 Characters count : 21 أتواصوا به بل هم قوم طاغون

فَتَوَلَّ عَنْهُمْ فَمَا أَنتَ بِمَلُومٍ

কাজেই তুমি তাদের দিক থেকে মুখ ফিরিয়ে লও, তার জন্য তুমি তিরস্কৃত হবে না।

Words count : 5 Characters count : 19 فتول عنهم فما أنت بملوم

وَذَكِّرْ فَإِنَّ الذِّكْرَىٰ تَنفَعُ الْمُؤْمِنِينَ

আর তুমি উপদেশ দিতে থাক, কেননা উপদেশ মু’মিনদের উপকার করবে।

Words count : 5 Characters count : 25 وذكر فإن الذكرى تنفع المؤمنين

وَمَا خَلَقْتُ الْجِنَّ وَالْإِنسَ إِلَّا لِيَعْبُدُونِ

আমি জ্বিন ও মানবকে সৃষ্টি করেছি একমাত্র এ কারণে যে, তারা আমারই ‘ইবাদাত করবে।।

Words count : 6 Characters count : 27 وما خلقت الجن والإنس إلا ليعبدون

مَا أُرِيدُ مِنْهُم مِّن رِّزْقٍ وَمَا أُرِيدُ أَن يُطْعِمُونِ

আমি তাদের থেকে রিযক চাই না, আর আমি এও চাই না যে, তারা আমাকে খাওয়াবে।

Words count : 9 Characters count : 30 ما أريد منهم من رزق وما أريد أن يطعمون

إِنَّ اللَّهَ هُوَ الرَّزَّاقُ ذُو الْقُوَّةِ الْمَتِينُ

আল্লাহই তো রিযকদাতা, মহা শক্তিধর, প্রবল পরাক্রান্ত।

Words count : 7 Characters count : 27 إن الله هو الرزاق ذو القوة المتين

فَإِنَّ لِلَّذِينَ ظَلَمُوا ذَنُوبًا مِّثْلَ ذَنُوبِ أَصْحَابِهِمْ فَلَا يَسْتَعْجِلُونِ

কাজেই যারা যুলম করেছে তাদের প্রাপ্য তাই যে প্রাপ্য পূর্বে ছিল তাদের মত লোকেদের; কাজেই (নিজেদের প্রাপ্য পাওয়ার জন্য) তারা যেন তাড়াহুড়া না করে।

Words count : 9 Characters count : 43 فإن للذين ظلموا ذنوبا مثل ذنوب أصحابهم فلا يستعجلون

فَوَيْلٌ لِّلَّذِينَ كَفَرُوا مِن يَوْمِهِمُ الَّذِي يُوعَدُونَ

কাফিরদের জন্য ধ্বংস (নেবে আসবে) তাদের সেদিনের যেদিনের ভয় তাদেরকে দেখানো হয়েছে।

Words count : 7 Characters count : 31 فويل للذين كفروا من يومهم الذي يوعدون